পাবনায় ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা!

0
191

পাবনা শহরের অনন্ত বাজার এলাকায় চাঁদা আদায় এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে গুলি ও ছুরিকাঘাতে বকুল শেখ (৪০) নামে এক ইউপি সদস্য নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বকুল শেখ পাবনা সদর উপজেলার দোগাছি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার ছিলেন।

পাবনা সদর থানার ওসি মোহাম্মদ নাছিম আহম্মেদ জানান, শহরের অনন্ত বাজার এলাকার টেম্পু ও সিএনজি চালিত অটোরিকশা স্ট্যান্ডে চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে মোখলেছ প্রামাণিক গ্রুপ এবং বকুল শেখ গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল। শুক্রবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে মোখলেছ প্রামাণিক গ্রুপকে চাঁদা আদায় করতে বাধা দেয় বকুল মেম্বারের নেতৃত্বে একদল যুবক। এ নিয়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় মোখলেছ প্রামাণিকের লোকজন গুলি করলে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপালে বকুল শেখ ঘটনাস্থলেই মারা যান।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় শহরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বকুল পাবনা সদর উপজেলার দক্ষিণ রামচন্দ্রপুর এলাকার দুলাল শেখের ছেলে। তিনি দোগাছি ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

নিহত বকুলের বাবা দুলাল শেখ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে অনন্ত মোড়ের সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারি চালিত অটোবাইকের চাঁদা তুলছিল এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী মোখলেস প্রামাণিক ও তার ছেলে রানা। এতে তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়ায় এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে সম্প্রতি চাঁদাবাজি বন্ধ করে অটোস্ট্যান্ড তুলে দেয় বকুল। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় তারা দলবল নিয়ে হামলা করে বকুলকে প্রকাশ্যে গুলি করে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুল আহাদ বাবু বলেন, বকুল আওয়ামী লীগের নিবেদিত কর্মী ছিলেন। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠ ছিল তার। ইউপি সদস্য হিসেবেও জনপ্রিয় ছিল। হত্যাকারী মোখলেছ চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তারা জামায়াত ও বিএনপির রাজনীতির সাথে যুক্ত। পুলিশের সামনেই একজন জনপ্রতিনিধিকে প্রকাশ্যে এমন নৃশংস হত্যা মেনে নেওয়া যায় না। আমরা হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

দোগাছি ইউপি চেয়ারম্যান আলী হাসান বলেন, বকুল শেখ আমাদের ইউনিয়নের অত্যন্ত জনপ্রিয় সদস্য। পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে। আমরা এর বিচার চাই।

এদিকে, বকুলের মৃত্যুর খবরে অনন্ত মোড় এলাকায় চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। অনন্ত বাজার এলাকায় দোকানপাট বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা। এই ঘটনার এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় পুলিশ তাতে বাধা দেয়। এ সময় বিক্ষুব্ধরা পুলিশের ওপর ইট পাটকেল ছুড়লে, পুলিশ ধাওয়া দিয়ে মিছিল ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। আধিপত্য বিস্তারের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email